২০৪

পরিচ্ছেদঃ

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর এক রাতের সালাতের বিবরণ:

২০৪. হুযায়ফা ইবনে ইয়ামান (রাঃ) হতে বর্ণিত। একদা তিনি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সঙ্গে রাত্রে সালাত আদায় করেন। তিনি বলেন, যখন তিনি সালাত আরম্ভ করলেন, তখন বললেন,

اللَّهُ أَكْبَرُ ذُو الْمَلَكُوتِ وَالْجَبَرُوتِ , وَالْكِبْرِيَاءِ وَالْعَظَمَةِ

“আল্ল-হু আকবার যুল মালাকূতি ওয়াল জাবারুতি ওয়াল কিবরিয়া-য়ি ওয়াল ‘আযামাহ”

অর্থাৎ আল্লাহ মহান, রাজাধিরাজ, অসীম শক্তির অধিকারী, বড়ত্ব ও মাহাত্ম্য তাঁরই জন্য।

তারপর তিনি (সূরা ফাতিহার পর) সূরা বাকারা তিলাওয়াত করেন। এরপর কিয়ামের ন্যায় দীর্ঘ রুকূ করেন। তিনি তাতে বলেন,

سُبْحَانَ رَبِّيَ الْعَظِيمِ ، سُبْحَانَ رَبِّيَ الْعَظِيمِ

এরপর “সুবহা-না রব্বিয়াল আযীম”, “সুবহা-না রব্বিয়াল আযীম”

অর্থাৎ আমার প্রভু পুত-পবিত্র ও মহান; আমার প্রভু পুত-পবিত্র ও মহান।

তারপর মাথা উঠালেন এবং তাঁর কিয়াম রুকূর ন্যায় দীর্ঘ হলো। এরপর বললেন,

لِرَبِّيَ الْحَمْدُ ، لِرَبِّيَ الْحَمْدُ

অর্থাৎ সকল প্রশংসা আমার প্রভুর জন্য; সকল প্রশংসা আমার প্রভুর জন্য।

তারপর তিনি সিজদা করলেন, আর তাঁর সিজদা কিয়ামের মতো দীর্ঘ হলো। তিনি বললেন,

سُبْحَانَ رَبِّيَ الأَعْلَى ، سُبْحَانَ رَبِّيَ الأَعْلَى

“সুবহা-না রব্বিয়াল আ'লা, সুবহা-না রব্বিয়াল আ'লা”

অর্থাৎ আমার প্রভু পবিত্র ও মহান, আমার প্রভূ পবিত্র ও মহান।

তারপর মাথা উঠালেন (অর্থাৎ সিজদা হতে উঠে বসেন)। আর ২ সিজদার মধ্যকার সময় ছিল সিজদায় থাকা সময়ের ব্যবধানের মতো। এ সময় তিনি বলতেন,

رَبِّ اغْفِرْ لِي ، رَبِّ اغْفِرْ لِي

“রব্বিগ ফিরলী”, “রব্বিগ ফিরলী”

অর্থাৎ হে আমার প্রতিপালক, আমাকে ক্ষমা করো; হে আমার প্রতিপালক, আমাকে ক্ষমা করো।

এমনকি তিনি সূরা বাকারা, আলে ইমরান, নিসা, মায়েদা অথবা আন’আম তিলাওয়াত করেন। বর্ণনাকারী সূরা মায়েদা না আনআম পর্যন্ত তিলাওয়াত করেছেন সে সম্পর্কে সন্দেহ পোষণ করেন।[1]

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ الْمُثَنَّى ، قَالَ : حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ جَعْفَرٍ ، قَالَ : حَدَّثَنَا شُعْبَةُ ، عَنْ عَمْرِو بْنِ مُرَّةَ ، عَنْ أَبِي حَمْزَةَ ، رَجُلٍ مِنَ الأَنْصَارِ ، عَنْ رَجُلٍ مِنْ بَنِي عَبْسٍ ، عَنْ حُذَيْفَةَ بْنِ الْيَمَانِ ، أَنَّهُ صَلَّى مَعَ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مِنَ اللَّيْلِ ، قَالَ : فَلَمَّا دَخَلَ فِي الصَّلاةِ ، قَالَ : " اللَّهُ أَكْبَرُ ذُو الْمَلَكُوتِ وَالْجَبَرُوتِ , وَالْكِبْرِيَاءِ وَالْعَظَمَةِ " ، قَالَ : ثُمَّ قَرَأَ الْبَقَرَةَ ، ثُمَّ رَكَعَ رُكُوعَهُ نَحْوًا مِنْ قِيَامِهِ , وَكَانَ يَقُولُ : " سُبْحَانَ رَبِّيَ الْعَظِيمِ ، سُبْحَانَ رَبِّيَ الْعَظِيمِ " ثُمَّ رَفَعَ رَأْسَهُ , فَكَانَ قِيَامُهُ نَحْوًا مِنْ رُكُوعِهِ ، وَكَانَ يَقُولُ : " لِرَبِّيَ الْحَمْدُ ، لِرَبِّيَ الْحَمْدُ " ثُمَّ سَجَدَ , فَكَانَ سُجُودُهُ نَحْوًا مِنْ قِيَامِهِ ، وَكَانَ يَقُولُ : " سُبْحَانَ رَبِّيَ الأَعْلَى ، سُبْحَانَ رَبِّيَ الأَعْلَى " ثُمَّ رَفَعَ رَأْسَهُ ، فَكَانَ مَا بَيْنَ السَّجْدَتَيْنِ نَحْوًا مِنَ السُّجُودِ ، وَكَانَ يَقُولُ : " رَبِّ اغْفِرْ لِي ، رَبِّ اغْفِرْ لِي " حَتَّى قَرَأَ الْبَقَرَةَ , وَآلَ عِمْرَانَ , وَالنِّسَاءَ , وَالْمَائِدَةَ , أَوِ الأَنْعَامَ " ، شُعْبَةُ الَّذِي شَكَّ فِي الْمَائِدَةِ ، وَالأَنْعَامِ

حدثنا محمد بن المثنى ، قال : حدثنا محمد بن جعفر ، قال : حدثنا شعبة ، عن عمرو بن مرة ، عن أبي حمزة ، رجل من الأنصار ، عن رجل من بني عبس ، عن حذيفة بن اليمان ، أنه صلى مع النبي صلى الله عليه وسلم من الليل ، قال : فلما دخل في الصلاة ، قال : " الله أكبر ذو الملكوت والجبروت , والكبرياء والعظمة " ، قال : ثم قرأ البقرة ، ثم ركع ركوعه نحوا من قيامه , وكان يقول : " سبحان ربي العظيم ، سبحان ربي العظيم " ثم رفع رأسه , فكان قيامه نحوا من ركوعه ، وكان يقول : " لربي الحمد ، لربي الحمد " ثم سجد , فكان سجوده نحوا من قيامه ، وكان يقول : " سبحان ربي الأعلى ، سبحان ربي الأعلى " ثم رفع رأسه ، فكان ما بين السجدتين نحوا من السجود ، وكان يقول : " رب اغفر لي ، رب اغفر لي " حتى قرأ البقرة , وآل عمران , والنساء , والمائدة , أو الأنعام " ، شعبة الذي شك في المائدة ، والأنعام


Hudhayfah bin Al Yamaan Radiyallahu 'Anhu says he performed salaah with Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam one night. After commencing the salaah he recited:
Allahu Akbar, dhul malakuti wal jabaruti wal kibri-yaa-i wal a-za-mati
Translation: Allah is supreme! Lord of Dominion, Power, Majesty, and Magnificence.

He then recited (after the Faatihah) Surah Baqarah, and performed ruku'. The length of the ruku' was as long as the qiyaam (standing posture). (The 'ulama give two meanings to this and both are possible. The first is that the ruku' was as long as the qiyaam. For example, if the qiyaam was for one hour, the ruku' was also for about one hour. Accordingly, this mas-alah is established, that if
the ruku' and sajdah are longer than normal, the salaah will be valid. The second is that the qiyaam was longer than normal. In this instance if the qiyaam was for an hour, and the ruku' for fifteen minutes, then too it will be truly explaining this hadith. According to this saying the salaah remains in the normal manner. i.e. a fundamental action of salaah that was long, like qiyaam, remained long. And those that were short, like ruku' or sajdah, remained short. But certainly every fundamental action was longer than normal). Rasulullah Sallallahu 'Alayhi
Wasallam repeated:

Subhaana rabbiyal azimi-Subhaana rabbiyal azimi

Translation: Glory be to my Lord the Magnificient.

He lifted his head from the ruku' and stood. This standing was also long like that of the ruku'. At this moment he repeated:

Li rabbiyal hamdu-Li rabbiyal hamdu.

Translation: All praises are for my Lord. All praises are for my Lord.

He then performed the sajdah. The sajdah was as long as the qawmah (standing in between the ruku' and sajdah). and he recited:
Subhaana rabbiyal aa'laa-Subhaana rabbiyal aa'laa

Translation: Glory be to my Lord the Exalted. Glory be to my Lord the Exalted.

He then sat up from the sajdah. This sitting was also long as that of the sajdah. Here he repeated:
Rabbigh-fir lee-Rabbig-fir lee

Translation: O Lord forgive me. O Lord forgive me.

Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam recited in this salaah Surah Baqarah, Surah Aali 'Imraan, Surah Nisaa, Surah Maa-idah or Surah An'aam. The narrator (Sayyidina Shu'ba Radiyallahu'Anhu) is in doubt regarding the last two surahs, whether is it Maa-idah or An'aam.

This hadith apparently indicates that these four surahs were recited in four rak'ahs. The narration of Abu Daawud is more detailed and it is stated therein that Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam performed four rak'ahs wherein he recited these four surahs. But in a narration of Sahih Muslim and others it is mentioned that Sayyidina Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam recited Surah Baqarah, Surah Nisaa and Surah Aali 'Imraan, all three in one rak'ah. The narration of Abu Daawud and Muslim apparently seem to be on different occasions. Although it may also be possible that this is the same event and an error may have occurred in transmission. It is not necessary to suppose it is an error, as Sayyidina. Rasulullah Sallallahu 'Alayhi Wasallam daily performed lengthy prayers. There could be no perplexity if four surah' were recited in four rak'ahs once, and three surahs in one rak'ah at another time.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
সহীহ শামায়েলে তিরমিযী
৪০. রাসূল (ﷺ) এর ইবাদাত (باب ما جاء في عبادة النبي ﷺ)