আনাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত হাদিস পাওয়া গেছে 3 টি

পরিচ্ছেদঃ ৩: সবর (ধৈর্যের) বিবরণ

৪/২৯। আনাস রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে বর্ণিত, যখন নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বেশী অসুস্থ হয়ে পড়লেন এবং তাকে কষ্ট ঘিরে ফেলল, তখন (তাঁর কন্যা) ফাতিমা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহা বললেন, ‘হায়! আব্বাজানের কষ্ট!’ তিনি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এ কথা শুনে বললেন, ‘‘আজকের দিনের পর তোমার পিতার কোনো কষ্ট হবে না।’’ অতঃপর যখন তিনি মারা গেলেন, তখন ফাতিমা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহা বললেন, ‘হায় আব্বাজান! প্রভু যখন তাঁকে আহ্বান করলেন, তখন তিনি তাঁর ডাকে সাড়া দিলেন। হায় আব্বাজান! জান্নাতুল ফিরদাউস তাঁর বাসস্থান। হায় আব্বাজান! আমরা জিবরীলকে আপনার মৃত্যু-সংবাদ দেব।’ অতঃপর যখন তাঁকে সমাধিস্থ করা হল, তখন ফাতিমা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহা (সাহাবাদেরকে) বললেন, ‘আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর উপর মাটি ফেলতে কি তোমাদেরকে ভাল লাগল?[1]

وعنْ أَنسٍ رضِيَ االله عنْهُ قَالَ : لمَّا ثقُلَ النَّبِيُّ صَلّى االلهُ عَلَيْهِ وسَلَّم جَعَلَ يتغشَّاهُ الكرْبُ فقَالتْ فاطِمَةُرَضِيَ االله عنْهَا : واآَرْبَ أبَتَاهُ ، فَقَالَ : » ليْسَ عَلَى أبيك آرْبٌ بعْدَ اليَوْمِ « فلمَّا مَاتَ قالَتْ : يَا أبتَاهُ أَجَابَربّاً دعَاهُ ، يا أبتَاهُ جنَّةُ الفِرْدَوْسِ مأوَاهُ ، يَا أَبَتَاهُ إِلَى جبْريلَ نْنعَاهُ ، فلَمَّا دُفنَ قالتْ فاطِمَةُ رَضِيَ االله عَنهَا :أطَابتْ أنفسُكُمْ أَنْ تَحْثُوا عَلَى رسُول االله صَلّى االلهُ عَلَيْهِ وسَلَّم التُّرابَ ؟ روَاهُ البُخاريُّ


Anas (May Allah be pleased with him) reported: When the last illness of Messenger of Allah (ﷺ) made him unconscious, Fatimah (May Allah be pleased with her) exclaimed: "Ah, the distress of my dear father." He (ﷺ) said, "There will be no distress for your father after today". When he died she said: "My father, Allah has called you back and you have responded to His Call. O father! Garden of Firdaus is your abode. O father! We announce to Jibril your death." When he was buried, she said: "Are you satisfied now that you put earth over (the grave of) Messenger of Allah (ﷺ)?" [Al- Bukhari] Commentary: This Hadith shows that it is permissible to express the trouble and restlessness which one feels at the time of death. Similarly, expression of pain and grief in a natural way in the event of someone's death is also permissible. To remember the virtues of the deceased is also permitted but it is to be free from wailing and moaning, lamentation and crying, and tearing off clothes, etc. The last words of Fatimah (May Allah be pleased with her) are also a way of expressing grief and sadness and not a criticism on the burial of the Prophet (PBUH) because such criticism is prohibited by Shari`ah and no one is exempted from it.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আনাস (রাঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৩: সবর (ধৈর্যের) বিবরণ

৭/৩২। আনাস রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একটি মহিলার পাশ দিয়ে অতিক্রম করলেন। সে একটি কবরের পাশে বসে কাঁদছিল। তিনি বললেন, ‘‘তুমি আল্লাহকে ভয় কর এবং ধৈর্য ধারণ কর।’’ সে বলল, ‘আপনি আমার নিকট হতে দূরে সরে যান। কারণ, আমি যে বিপদে পড়েছি আপনি তাতে পড়েননি।’ সে তাঁকে চিনতে পারেনি (তাই সে চরম শোকে তাঁকে অসঙ্গত কথা বলে ফেলল)। অতঃপর তাকে বলা হল যে, ‘তিনি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ছিলেন।’ সুতরাং (এ কথা শুনে) সে নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর দুয়ারের কাছে এল। সেখানে সে দারোয়ানদেরকে পেল না। অতঃপর সে (সরাসরি প্রবেশ করে) বলল, ‘আমি আপনাকে চিনতে পারিনি।’ তিনি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, ‘‘আঘাতের শুরুতে সবর করাটাই হল প্রকৃত সবর।’’[1]

মুসলিমের একটি বর্ণনায় আছে, সে (মহিলাটি) তার মৃত শিশুর জন্য কাঁদছিল।

وَعَنْ أَنَسٍ رَضِي اللَّهُ عَنْهُ قَالَ : مَرَّ النَّبِيُّ صَلّى االلهُ عَلَيْهِ وسَلَّم بِامْرَأَةٍ تَبْكِي عِنْدَ قَبْرٍ فَقَال : »اتَّقِي االلهوَاصْبِرِي « فَقَالَتْ : إِلَيْكَ عَنِّي ، فَإِنِّكَ لَمْ تُصَبْ بمُصِيبتى، وَلَمْ تعْرفْهُ ، فَقيلَ لَها : إِنَّه النَّبِيُّ صَلّى االلهُ عَلَيْهِوسَلَّم ، فَأَتتْ بَابَ النَّبِّي صَلّى االلهُ عَلَيْهِ وسَلَّم ، فلَمْ تَجِد عِنْدَهُ بَوَّابينَ ، فَقالتْ : لَمْ أَعْرِفْكَ ، فقالَ : » إِنَّماالصَّبْرُ عِنْدَ الصَّدْمَةِ الأولَى « متفقٌ عليه.وفي رواية لمُسْلمٍ : » تَبْكِي عَلَى صَبيٍّ لَهَا «


Anas (May Allah be pleased with him) reported: The Prophet (ﷺ) passed by a woman who was crying over a grave and said, "Fear Allah and be patient." She said, "Away from me! My calamity has not befallen you and you are not aware of it." The woman was later told that it was the Prophet (ﷺ) (who had advised her). She came to his door where she found no doorkeeper. She said, "(I am sorry) I did not know you." Messenger of Allah (ﷺ) said, "Patience is (becoming) only at the first (stroke) of grief". [Al-Bukhari and Muslim]. Another narration in Muslim says: The woman was crying over her son. Commentary: This Hadith indicates the excellence of the Prophet's character. The woman whom he advised to have patience did not behave properly, but the Prophet (PBUH) was neither annoyed nor did he reproach her. When she appeared before him for the second time, he again repeated his advice for patience. This Hadith has a great lesson for those who call people to the Right Path. Our scholars and preachers should follow this excellent example.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আনাস (রাঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ

পরিচ্ছেদঃ ৩: সবর (ধৈর্যের) বিবরণ

১০/৩৫। আনাস রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু বর্ণনা করেন যে, আমি আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে বলতে শুনেছি, তিনি বলেন, ‘‘আল্লাহ তা‘আলা বলেন, যখন আমি আমার বান্দাকে তার প্রিয়তম দুটি জিনিস দ্বারা (অর্থাৎ চক্ষু থেকে বঞ্চিত করে) পরীক্ষা করি এবং সে সবর করে আমি তাকে এ দু’টির বিনিময়ে জান্নাত প্রদান করব।’’[1]

وعَنْ أَنسٍ رضي اللَّه عنه قال : سَمِعْتُ رسول اللَّه صَلّى االلهُ عَلَيْهِ وسَلَّم يقولُ : » إنَّ اللَّه عَزَّ وجَلَّ قَالَ: إِذَا ابْتَلَيْتُ عَبدِي بحبيبتَيْهِ فَصبَرَ عَوَّضْتُهُ مِنْهُمَا الْجنَّةَ « يُريدُ عينيْه ، رواه البخاريُّ .


Anas (May Allah be pleased with him) said: I heard the Messenger of Allah (ﷺ) saying, "Allah, the Glorious and Exalted said: 'When I afflict my slave in his two dear things (i.e., his eyes), and he endures patiently, I shall compensate him for them with Jannah.". [Al-Bukhari]. Commentary: Blindness is the greatest deprivation in the world and Allah grants its reward according to His Pleasure. For this reason patience in this case is highly meritorious. Its reward is Jannah provided the blind is enormously rich in Faith.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আনাস (রাঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
দেখানো হচ্ছেঃ থেকে ৩ পর্যন্ত, সর্বমোট ৩ টি রেকর্ডের মধ্য থেকে