বুলুগুল মারাম পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ প্রত্যেক দাঁতযুক্ত হিংস্ৰ জন্তু এবং নখরযুক্ত পাখি ভক্ষণ করা হারাম

১৩১৯। আবূ হুরাইরা (রাঃ) হতে বর্নিত; নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ কর্তন বিশিষ্ট সকল হিংস্র পশুর গোশত খাওয়া হারাম।[1]

عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ - رضي الله عنه - عَنِ النَّبِيِّ - صلى الله عليه وسلم - قَالَ: «كُلُّ ذِي نَابٍ مِنَ السِّبَاعِ, فَأَكلُهُ حَرَامٌ». رَوَاهُ مُسْلِمٌ

-

صحيح. رواه مسلم (1933)


Abu Hurairah (RAA) narrated that the Messenger of Allah (ﷺ) said:
"Eating any predatory beast that has fangs, is prohibited." Related by Muslim.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ প্রত্যেক দাঁতযুক্ত হিংস্ৰ জন্তু এবং নখরযুক্ত পাখি ভক্ষণ করা হারাম

১৩২০। ইবনু আব্বাস (রাঃ) হতে বর্ণিত; হাদীসের শব্দ, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নিষিদ্ধ করেছেন, তাতে আরো আছে বড় নখবিশিষ্ট পাখির গোশত খাওয়া হারাম।[1]

وَأَخْرَجَهُ: مِنْ حَدِيثِ اِبْنِ عَبَّاسٍ بِلَفْظٍ: نَهَى. وَزَادَ: «وَكُلُّ ذِي مِخْلَبٍ مِنَ الطَّيْرِ

-

صحيح. رواه مسلم (1934)


Muslim transmitted the same hadith on the authority of Ibn 'Abbas (RAA), 'He (The Messenger of Allah (ﷺ)) prohibited...' and had the additional phrase, 'and every bird with talons.'


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ গৃহপালিত গাধা হারাম ও ঘোড়া খাওয়া বৈধ

১৩২১। জাবির (রাঃ) হতে বর্ণিত; তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম খাইবার যুদ্ধের সময় গৃহপালিত গাধার গোশত খেতে নিষেধ করেছেন এবং ঘোড়ার গোশত খাওয়ার অনুমতি দিয়েছিলেন। বুখারীর শব্দে আছে, ওয়া-রাখখাসা (ঘোড়ার গোশত খাবার রুখসাত দিয়েছিলেন)।[1]

وَعَنْ جَابِرٍ - رضي الله عنه - قَالَ: نَهَى رَسُولُ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم - يَوْمَ خَيْبَرَ عَنْ لُحُومِ الْحُمُرِ الْأَهْلِيَّةِ, وَأَذِنَ فِي لُحُومِ الْخَيْلِ. مُتَّفَقٌ عَلَيْهِ
وَفِي لَفْظِ الْبُخَارِيِّ: وَرَخَّصَ

-

صحيح. رواه البخاري (4219)، ومسلم (1941)


Jabir (RAA). narrated, 'On the Day of Khaibar, the Messenger of Allah (ﷺ) prohibited eating the flesh of domestic asses, but permitted horse flesh.' Agreed upon.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ পঙ্গপাল খাওয়ার বৈধতা

১৩২২। ইবনু আবূ আওফা (রাঃ) হতে বৰ্ণিত। তিনি বলেন, আমরা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সঙ্গে সাতটি কিংবা ছয়টি যুদ্ধে অংশগ্রহণ করি। আমরা তাঁর সঙ্গে ফড়িংও খাই।[1]

وَعَنِ ابْنِ أَبِي أَوْفَى قَالَ: غَزَوْنَا مَعَ رَسُولِ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم - سَبْعَ غَزَوَاتٍ, نَأْكُلُ الْجَرَادَ. مُتَّفَقٌ عَلَيْهِ

-

صحيح. رواه البخاري (5495)، ومسلم (1952)


Ibn Abi Aufa (RAA) narrated, 'We went on seven expeditions with the Messenger of Allah (ﷺ) and we ate locusts.' Agreed upon.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ খরগোশ খাওয়ার বৈধতা

১৩২৩। আনাস (রাঃ) হতে খরগোশের বর্ণনায় বর্ণিত। তিনি বলেন, তা যবোহ করে তার একটি রান রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর নিকটে পাঠালে তিনি তা গ্রহণ করেছিলেন।[1]

وَعَنْ أَنَسٍ - فِي قِصَّةِ الْأَرْنَبِ - قَالَ: فَذَبَحَهَا, فَبَعَثَ بِوَرِكِهَا إِلَى رَسُولِ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم - فَقَبِلَهُ. مُتَّفَقٌ عَلَيْهِ

-

صحيح. رواه البخاري (2572)، ومسلم (1953)
صحيح البخاري - (7/ 96)
عَنْ أَنَسٍ رَضِيَ اللهُ عَنْهُ قَالَ أَنْفَجْنَا أَرْنَبًا وَنَحْنُ بِمَرِّ الظَّهْرَانِ فَسَعَى الْقَوْمُ فَلَغِبُوا (فَتَعِبُوا) فَأَخَذْتُهَا فَجِئْتُ بِهَا إِلَى أَبِي طَلْحَةَ فَذَبَحَهَا فَبَعَثَ بِوَرِكَيْهَا أَوْ قَالَ بِفَخِذَيْهَا إِلَى النَّبِيِّ - صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ -فَقَبِلَهَا


Anas (RAA) narrated regarding the story of the rabbit, 'He (Abu Talha) slaughtered it and sent its leg to the Messenger of Allah (ﷺ) and he accepted it.' Agreed upon.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ যে সমস্ত জন্তু হত্যা করা নিষেধ তা ভক্ষণ করাও হারাম

১৩২৪। ইবনু আব্বাস (রাঃ) হতে বর্ণিত; তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম চারটি জন্তু হত্যা করতে নিষেধ করেছেনঃ পিপীলিকা, মৌমাছি, হুদহুদ পাখি ও সূরাদ (এক প্রকার শিকারী পাখি)।[1]

وَعَنِ ابْنِ عَبَّاسٍ - رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا - قَالَ: نَهَى رَسُولُ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم - عَنْ قَتْلِ أَرْبَعِ مِنَ الدَّوَابِّ: النَّمْلَةُ, وَالنَّحْلَةُ, وَالْهُدْهُدُ, وَالصُّرَدُ. رَوَاهُ أَحْمَدُ, وَأَبُو دَاوُدَ, وَصَحَّحَهُ ابْنُ حِبَّانَ

-

صحيح. رواه أحمد (1/ 332 و 347)، وأبو داود (5267)، وابن ماجه (3224) وابن حبان (1078)


Ibn 'Abbas (RAA), The Messenger (ﷺ) prohibited killing four creatures; ants, bees, hoopoes and shirkes.' Related by Ahmad and Abu Dawud. Ibn Hibban graded it as Sahih.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ হায়েনা খাওয়ার বিধান

১৩২৫। ইবনু আবী আম্মার (রাঃ) হতে বর্ণিত; তিনি বলেন: আমি জাবির (রাঃ) কে বললাম, হায়েনা কি হালাল শিকার? তিনি বললেন, হ্যাঁ। আমি বললাম, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কি তা বলেছেন? তিনি বললেন, হ্যাঁ।[1]

وَعَنِ ابْنِ أَبِي عَمَّارٍ قَالَ: قُلْتُ لِجَابِرٍ: الضَّبُعُ صَيْدٌ هِيَ قَالَ: نَعَمْ. قُلْتُ: قَالَهُ رَسُولُ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم - قَالَ: نَعَمْ. رَوَاهُ أَحْمَدُ, وَالْأَرْبَعَةَ وَصَحَّحَهُ الْبُخَارِيُّ, وَابْنُ حِبَّانَ

-

صحيح. رواه أحمد (3/ 318 / 322)، وأبو داود (3801)، والنسائي (5/ 191)، والترمذي (851)، وابن ماجه (3236)، وابن حبان (1068) وقال الترمذي: «حسن صحيح». وقال في «العلل الكبير» (2/ 757): «سألت محمدًا عن هذا الحديث؟ فقال: هو «حديث صحيح». قلت: وفي الحديث سؤال ابن أبي عمار لجابر عن أكلها، وجواب جابر له بالإيجاب


Ibn Abi 'Ammar narrated. 'I said to Jabir (RAA), 'Is hyena a kind of game?' He replied, 'Yes.' I asked, 'Did Allah's Messenger (ﷺ) say that?' He replied, 'Yes.' Related by Ahmad and the four Imams. Al-Bukhari and Ibn Hibban graded it as Sahih.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ ইবনু আবী আম্মার
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ শজারু খাওয়ার বিধান

১৩২৬। ইবন উমার (রাঃ) হতে বর্ণিত; তাকে শজারু (কন্টকাকীর্ণ পাখাবিশিষ্ট জীব) প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করা হলে তার উত্তরে একটা আয়াতের উদ্ধৃতি দিলেন যার সারমর্ম- এটাতো আহার গ্রহণকারীর জন্য হারামকৃত বস্তুর অন্তর্গত বলে পাচ্ছি না। তার নিকটে উপস্থিত একজন বৃদ্ধ সাহাবী বলেন, আমি আবূ হুরাইরা (রাঃ) কে বলতে শুনেছি, তিনি বলেন, নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর নিকটে এ কুনফু্য প্রসঙ্গে আলোচনা হওয়ায় তিনি বলেন, অবশ্য এটা নাপাক বস্তুর মধ্যে একটা।[1]

وَعَنِ ابْنِ عُمَرَ - رضي الله عنه - أَنَّهُ سُئِلَ عَنِ الْقُنْفُذِ, فَقَالَ: (قُلْ لَا أَجِدُ فِي مَا أُوحِيَ إِلَيَّ مُحَرَّمًا عَلَى طَاعِمٍ يَطْعَمُهُ ... ) الآية [الأنعام: 145]، فَقَالَ شَيْخٌ عِنْدَهُ: سَمِعْتُ أَبَا هُرَيْرَةَ يَقُولُ: ذَكَرَ عِنْدَ النَّبِيِّ - صلى الله عليه وسلم - فَقَالَ: «خَبْثَةٌ مِنَ الْخَبَائِثِ». أَخْرَجَهُ أَحْمَدُ, وَأَبُو دَاوُدَ, وَإِسْنَادُهُ ضَعِيفٌ

-

ضعيف. رواه أحمد (2/ 381)، وأبو داود (3799)، من طريق عيسى بن نميلة، عن أبيه، قال: كنت عند ابن عمر، به. وهذا سند فيه ثلاثة «مجاهيل» عيسى، وأبوه، والشيخ الذي سمعه من أبي هريرة


Ibn 'Umar (RAA)narrated that he was asked about a hedgehog and he recited, "Say (O Muhammad (ﷺ) I find not in that which has been inspired to me anything forbidden." (6:
145) An old man who was present said, 'I heard Abu Hurairah say, 'It was mentioned in the presence of the Prophet (ﷺ) and he said, "It is an abomination from those things which are abominable." Ibn 'Umar then said, 'If the Messenger of Allah (ﷺ) had said that, then it is as he said.' Related by Ahmad and Abu Dawud with a weak chain of narrators.


হাদিসের মানঃ যঈফ (Dai'f)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ নাপাক বস্তু ভক্ষণকারী জন্তুর গোশত খাওয়া এবং এর দুধ পান করা হারাম

১৩২৭। ইবনু উমার (রাঃ) হতে বর্ণিত; তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নাপাক বস্তু ভক্ষণকারী জন্তুর গোশত খেতে ও তার দুধ পান করতে নিষেধ করেছেন।[1]

وَعَنِ ابْنِ عُمَرَ - رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا - قَالَ: نَهَى رَسُولُ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم - عَنْ الْجَلَّالَةِ وَأَلْبَانِهَا. أَخْرَجَهُ الْأَرْبَعَةُ إِلَّا النَّسَائِيُّ, وَحَسَّنَهُ التِّرْمِذِيُّ

-

صحيح. بشواهده. رواه أبو داود (3785)، والترمذي (1824)، وابن ماجه (3189) وقال الترمذي: حديث حسن غريب


Ibn 'Umar (RAA) narrated, "The Messenger of Allah (ﷺ) prohibited eating the animal which feeds on filth or drinks its milk." Related by the four Imams except for An-Nasai. At-Tirmidhi graded it as Hasan.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ বন্য গাধার গোস্তের বৈধতা

১৩২৮। আবূ ক্বাতাদাহ (রাঃ) হতে বর্ণিত; বন্য গাধার ঘটনায় আছে, নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ওটার গোশত খেয়েছেন।[1]

وَعَنْ أَبِي قَتَادَةٌ - رضي الله عنه - فِي قِصَّةِ الْحِمَارِ الْوَحْشِيِّ- فَأَكَلَ مِنْهُ النَّبِيُّ - صلى الله عليه وسلم. مُتَّفَقٌ عَلَيْهِ

-

صحيح. رواه البخاري (2854)، ومسلم (1196) (63) وفيه: فقال صلى الله عليه وسلم: «هل معكم منه شيء؟» قالوا: معنا رجله. قال فأخذها رسول الله صلى الله عليه وسلم فأكلها


Abu Qatadah narrated concerning the zebra. The Messenger of Allah (ﷺ) ate from it.' Agreed upon.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আবূ কাতাদাহ্ (রাঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ ঘোড়ার গোশতের বৈধতা

১৩২৯। আসমা বিনতু আবী বাকর (রাঃ) হতে বর্ণিত; তিনি বলেন: আমরা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর যুগে ঘোড়া নাহর (যাবাহ) করেছিলাম ও এর গোশত খেয়েছিলাম।[1]

وَعَنْ أَسْمَاءِ بِنْتِ أَبِي بَكْرٍ - رَضِيَ اللَّهُ عَنْهَا - قَالَتْ: نَحَرْنَا عَلَى عَهْدِ رَسُولِ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم - فَرَسًا, فَأَكَلْنَاهُ. مُتَّفَقٌ عَلَيْهِ

-

صحيح. رواه البخاري (5510)، ومسلم (1942)


Asma' bint Abi Bakr (RAA) narrated, 'During the lifetime of the Prophet (ﷺ), we slaughtered a horse and ate it.' Agreed upon.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ গুইসাপের গোশতের বৈধতা

১৩৩০। ইবনু আব্বাস (রাঃ) হতে বর্ণিত; তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এ দস্তর খানের উপর গুইসাপ (গোহ) খাওয়া হয়েছে।[1]

وَعَنِ ابْنِ عَبَّاسٍ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا قَالَ: أُكِلَ الضَّبُّ عَلَى مَائِدَةِ رَسُولُ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم. مُتَّفَقٌ عَلَيْهِ

-

صحيح. رواه البخاري (7358)، ومسلم (1947) من حديث ابن عباس قال: أهدت خالتي أم حفيد إلى رسول الله صلى الله عليه وسلم سمنًا وأقطًا وأضبًا. فأكل من السمن والأقط، وترك الضب تقذرًا، وأكل على مائدة رسول الله صلى الله عليه وسلم، ولو كان حرامًا ما أكل على مائدة رسول الله صلى الله عليه وسلم. والسياق لمسلم


Ibn 'Abbas (RAA) narrated, 'The sand lizard was served as food on the table of the Prophet (ﷺ).' Agreed upon.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ ব্যাঙ হত্যা করা নিষেধ

১৩৩১। আব্দুর রহমান ইবনু উসমান (রাঃ) হতে বর্ণিত; কোন চিকিৎসক রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে ব্যাঙ প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করলেন এটা ঔষধে প্রয়োগ করবেন কি না? তিনি ওটা হত্যা করতে নিষেধ করলেন।[1]

وَعَنْ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ عُثْمَانَ الْقُرَشِيُّ - رضي الله عنه: أَنَّ طَبِيبًا سَأَلَ رَسُولَ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم عَنِ الضِّفْدَعِ يَجْعَلُهَا فِي دَوَاءٍ, فَنَهَى عَنْ قَتْلِهَا. أَخْرَجَهُ أَحْمَدُ, وَصَحَّحَهُ الْحَاكِمُ

-

صحيح. رواه أحمد (3/ 499)، والحاكم (4/ 411) من طريق ابن المسيب، عن عبد الرحمن، به. قلت: وأيضا رواه أبو داود (3871)، والنسائي (7/ 210) من نفس الطريق، وبنفس اللفظ


'Abdur Rahman bin 'Uthman al-Qurashi (RAA) narrated, 'A doctor consulted the Prophet (ﷺ) about extracting medicine from a frog but he prohibited killing it.' Related by Ahmad, Abu Dawud and An-Nasai. Al-Hakim graded it as Sahih.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ ১. শিকার ও যবহকৃত জন্তু - শিকারী কুকুর পালনের বৈধতা

১৩৩২। আবূ হুরাইরা (রাঃ) হতে বৰ্ণিত। তিনি বলেন, আল্লাহর রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি গৃহপালিত পশুর রক্ষণাবেক্ষণ বা শিকার করণার্থে অথবা শস্য ক্ষেতের পাহারার উদ্দেশ্য ছাড়া অন্য কোন উদ্দেশ্যে কুকুর পোষে, প্রতিদিন তার নেক আমল হতে এক কীরাত পরিমাণ কমতে থাকবে।[1]

عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ - رضي الله عنه - قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم: «مَنِ اتَّخَذَ كَلْبًا, إِلَّا كَلْبَ مَاشِيَةٍ, أَوْ صَيْدٍ, أَوْ زَرْعٍ, انْتَقَصَ مِنْ أَجْرِهِ كُلَّ يَوْمٍ قِيرَاطٌ». مُتَّفَقٌ عَلَيْهِ

-

صحيح. رواه البخاري (2322)، ومسلم (1575) (58) والسياق لمسلم


Abu Hurairah (RAA) narrated that the Messenger of Allah (ﷺ) said:
'If anyone owns a dog except a sheepdog, a hunting dog, or a farm dog, a carat of his reward will be deducted daily." Agreed upon.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ ১. শিকার ও যবহকৃত জন্তু - ধারালো এবং জখম করা যায় এমন অস্ত্ৰ দ্বারা শিকার করা

১৩৩৩। ‘আদী ইবনু হাতিম (রাঃ) হতে বৰ্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাকে বলেছেন, তুমি যদি তোমার কুকুরকে শিকার ধরার জন্য পাঠাবে বিসমিল্লাহ বলে পাঠাবে, যদি সে শিকারকে তোমার জন্য রেখে দেয় এবং তুমি তা জীবিত পাও তবে জবাই করবে। আর যদি তুমি দেখা যে, কুকুর তার শিকারকে মেরে ফেলেছে কিন্তু সে তা হতে কিছু খায়নি, তবে তুমি তা খেতে পার। আর যদি তুমি তোমার কুকুরের সাথে অন্য কুকুর দেখতে পাও এবং সেগুলো শিকার ধরে মেরে ফেলে, তা হলে তা খাবে না। কেননা, তুমি তো জান না যে, কোন কুকুরটি হত্যা করেছে? আর যদি তুমি শিকারের প্রতি তীর নিক্ষেপ কর তখন বিসমিল্লাহ বলবে। এরপর তা একদিন বা দু’দিন পর এমন অবস্থায় হাতে পাও যে, তার গায়ে তোমার তীরের আঘাত ব্যতীত অন্য কিছু নেই, তাহলে খাও। আর যদি তা পানির মধ্যে পড়ে থাকে, তা হলে তা খাবে না।[1]

وَعَنْ عَدِيِّ بنِ حَاتِمٍ - رضي الله عنه - قَالَ: قَالَ لِي رَسُولُ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم: «إِذَا أَرْسَلْتَ كَلْبَكَ فَاذْكُرِ اسْمَ اللَّهِ, فَإِنْ أَمْسَكَ عَلَيْكَ فَأَدْرَكْتَهُ حَيًّا فَاذْبَحْهُ, وَإِنْ أَدْرَكْتَهُ قَدْ قُتِلَ وَلَمْ يُؤْكَلْ مِنْهُ فَكُلْهُ, وَإِنْ وَجَدْتَ مَعَ كَلْبِكَ كَلْبًا غَيْرَهُ وَقَدْ قُتِلَ فَلَا تَأْكُلْ، فَإِنَّكَ لَا تَدْرِي أَيَّهُمَا قَتَلَهُ, وَإِنْ رَمَيْتَ سَهْمَكَ فَاذْكُرِ اسْمَ اللَّهِ, فَإِنْ غَابَ عَنْكَ يَوْمًا, فَلَمْ تَجِدْ فِيهِ إِلَّا أَثَرَ سَهْمِكَ, فَكُلْ إِنْ شِئْتَ, وَإِنْ وَجَدْتَهُ غَرِيقًا فِي الْمَاءِ, فَلَا تَأْكُلْ». مُتَّفَقٌ عَلَيْهِ, وَهَذَا لَفْظُ مُسْلِمٍ

-

صحيح رواه البخاري (5484)، ومسلم (1929) (6)


'Adi bin Hatim (RAA) narrated, 'The Messenger of Allah (ﷺ) said to me, "When you set off your dog, mention Allah's Name (Say Bismillah), and if it catched anything for you and come up to it while it is still alive slaughter it; if you come up to it when the dog has killed it but not eaten any of it, eat it. If you find another dog with yours and the game has been killed, do not eat, for you do not know which of them killed the animal. When you shoot your arrow, mention Allah's Name and if the game goes out of sight for a day and you find it without any marks except for that arrow, eat if you wish, but if you find it drowned in water do not eat it." Agreed upon, and the wording is from Muslim.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আদী ইবনু হাতিম (রাঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ ১. শিকার ও যবহকৃত জন্তু - পালকবিহীন তীর দ্বারা শিকার করা

১৩৩৪। ‘আদী ইবনু হাতিম (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে তীরের শিকার সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলাম। তিনি বললেন: যদি তীরের ধারালো অংশ দ্বারা আঘাত করে থাক তাহলে খাও, আর যদি ফলার আঘাত লেগে থাকে এবং শিকারটি মারা যায়, তাহলে খেও না। কেননা, সেটি ওয়াকীয বা থেতলে মরার মধ্যে গণ্য।[1]

وَعَنْ عَدِيٍّ قَالَ: سَأَلْتُ رَسُولَ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم - عَنْ صَيْدِ الْمِعْرَاضِ فَقَالَ: «إِذَا أَصَبْتَ بِحَدِّهِ فَكُلْ, وَإِذَا أَصَبْتَ بِعَرْضِهِ, فَقُتِلَ, فَإِنَّهُ وَقِيذٌ, فَلَا تَأْكُلْ». رَوَاهُ الْبُخَارِيُّ

-

صحيح. رواه البخاري (5476)


'Adi (RAA) narrated, 'I asked the Messenger of Allah (ﷺ) about hunting using a featherless arrow (al-Mi'rad) [1]. He replied, "If The game is killed with its sharp edge (the iron piece) eat it; but if it strikes with the middle part of the shart (i.e. it is not penetrated with the sharp part) and the game is killed (due to being hit with it), it is considered a Mauqudhah [2], so do not eat it." Related by Al-Bukhari.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আদী ইবনু হাতিম (রাঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ ১. শিকার ও যবহকৃত জন্তু - শিকারের প্রতি তীর নিক্ষেপের পর তা অদৃশ্য হয়ে গেলে, অতপর তা পেলে খাওয়ার বিধান

১৩৩৫। আবূ সা'লাবাহ (রাঃ) হতে বর্ণিত; নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন: (আল্লাহর নাম নিয়ে) তুমি শিকারের প্রতি তোমার তীর নিক্ষেপ করার পর যদি ঐ শিকার তোমার হস্তগত না হয়ে অদৃশ্য থাকে, তারপর তুমি ওটা পেলে এবারে তুমি তা খাও যতক্ষণ পর্যন্ত সেটা দুৰ্গন্ধযুক্ত না হয়।[1]

وَعَنْ أَبِي ثَعْلَبَةَ - رضي الله عنه - عَنِ النَّبِيِّ - صلى الله عليه وسلم - قَالَ: «إِذَا رَمَيْتَ بِسَهْمِكَ, فَغَابَ عَنْكَ, فَأَدْرَكْتَهُ فَكُلْهُ, مَا لَمْ يُنْتِنْ». أَخْرَجَهُ مُسْلِمٌ

-

صحيح. رواه مسلم (1931)


Abu Tha'labah (RAA) narrated that the Messenger of Allah (ﷺ) said:
"When you shoot your arrow and the game has gone our of sight, eat it when you come upon it, provided it has not become rotten."


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ ১. শিকার ও যবহকৃত জন্তু - জবেহের সময় বিসমিল্লাহ বলার বিধান

১৩৩৬। ‘আয়িশা (রাঃ) হতে বৰ্ণিত। একদল লোক নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে বলল কতক লোক আমাদের নিকট গোশত নিয়ে আসে। আমরা জানি না যে, পশু যবহের সময় বিসমিল্লাহ বলা হয়েছিল কিনা। তখন নাবীসাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন: তোমরাই এর উপর বিসমিল্লাহ পড় এবং তা খাও।[1]

وَعَنْ عَائِشَةَ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهَا; أَنَّ قَوْمًا قَالُوا لِلنَّبِيِّ - صلى الله عليه وسلم: إِنَّ قَوْمًا يَأْتُونَنَا بِاللَّحْمِ, لَا نَدْرِي أَذُكِرَ اسْمُ اللَّهِ عَلَيْهِ أَمْ لَا? فَقَالَ: «سَمُّوا اللَّهَ عَلَيْهِ أَنْتُمْ, وَكُلُوهُ». رَوَاهُ الْبُخَارِيُّ

-

صحيح. رواه البخاري (5507)


'Aishah (RAA) narrated, 'Some people said to Allah's Messenger (ﷺ), There are people who bring us meat and we do not know whether or not they have mentioned Allah's name over it.' He replied, "Mention Allah's name yourselves and eat it." Related by Al-Bukhari.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
বর্ণনাকারীঃ আয়িশা (রাঃ)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ ১. শিকার ও যবহকৃত জন্তু - খাযফ করা নিষেধ এবং এর মাধ্যমে শিকারকৃত জন্তু খাওয়া হারাম

১৩৩৭। ‘আবদুল্লাহ ইবনু মুগাফফাল মুজানী (রাঃ) হতে বর্ণিত যে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ছোট পাথর নিক্ষেপ করতে নিষেধ করেছেন। আর বলেছেনঃ এর দ্বারা কোন প্ৰাণী শিকার করা হয় না এবং কোন শক্ৰকেও ঘায়েল করা হয় না। তবে এটি কারো দাঁত ভেঙ্গে ফেলতে পারে এবং চোখ ফুঁড়ে দিতে পারে।-শব্দ বিন্যাস মুসলিমের।[1]

وَعَنْ عَبْدِ اللَّهِ بنِ مُغَفَّلٍ الْمُزَنِيِّ - رضي الله عنه: أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ - صلى الله عليه وسلم - نَهَى عَنِ الْخَذْفِ, وَقَالَ: «إِنَّهَا لَا تَصِيدُ صَيْدًا, وَلَا تَنْكَأُ عَدُوًّا, وَلَكِنَّهَا تَكْسِرُ السِّنَّ, وَتَفْقَأُ الْعَيْنَ». مُتَّفَقٌ عَلَيْهِ. وَاللَّفْظُ لِمُسْلِمٍ

-

صحيح. رواه البخاري (5479)، ومسلم (1954) (56) والخذف: هو أن يرمي الإنسان الحصاة جاعلا إياها بين سبابتيه، أو بين السبابة والإبهام، وفي هامش النسخة «أ»: خذف الحصى: برؤوس الأصابع


'Abdullah bin Mughaffal al-Muzani (RAA) narrated, 'The Messenger of Allah (ﷺ) prohibited throwing pebbles (on animals) and said, 'Such means do not hunt a game, nor do they injure an enemy, but they only may break a tooth or gouge out an eye.' Agreed upon, and it is Muslim's version.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)

পরিচ্ছেদঃ ১. শিকার ও যবহকৃত জন্তু - কোন জীব জন্তুকে (তীর মারার জন্য) নিশানা রুপে গ্ৰহণ করা নিষেধ

১৩৩৮। ইবনু আব্বাস (রাঃ) হতে বর্ণিত; নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন: কোন জীবন্ত জন্তুকে তীর মারার জন্য নিশানারূপে গ্ৰহণ করবে না।[1]

وَعَنِ ابْنِ عَبَّاسٍ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا; أَنَّ النَّبِيَّ - صلى الله عليه وسلم - قَالَ: «لَا تَتَّخِذُوا شَيْئًا فِيهِ الرُّوحُ غَرَضًا». رَوَاهُ مُسْلِمٌ

-

صحيح. رواه مسلم (1957) والغرض: الهدف


Ibn 'Abbas (RAA) narrated that the Messenger of Allah (ﷺ) said:
"Do not take any living creature as a target."Related by Muslim.


হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)
পুনঃনিরীক্ষণঃ
বুলুগুল মারাম
পর্ব - ১২ঃ খাদ্য (كتاب الاطعمة)
দেখানো হচ্ছেঃ থেকে ২০ পর্যন্ত, সর্বমোট ৪১ টি রেকর্ডের মধ্য থেকে পাতা নাম্বারঃ 1 2 3 পরের পাতা »